যেসব বিষয় কখনোই গুগলে সার্চ করবেন না!

যেসব বিষয় কখনোই গুগলে সার্চ করবেন না!

আগেকার দিনে যখন আমাদের কোনো কিছু জানতে ইচ্ছে হতো বা প্রয়োজন হতো তখন আমরা বয়োজ্যেষ্ঠ বা পণ্ডিতদের কাছে জিজ্ঞেস করতাম, অনেক অনেক বই পড়তে হতো। কিন্তু আজ প্রযুক্তির কল্যাণে তা সহজ হয়ে গেছে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে পরিচিত গুগল। এই গুগলের কল্যাণে আমাদের প্রয়োজনীয় সব প্রশ্ন এবং উত্তরের মাঝে দূরত্ব শুধুমাত্র একটা ক্লিকের। এক ক্লিকের মাধ্যমেই আমরা গুগুলে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কিত হাজার হাজার লেখা পেয়ে যাই। কিন্তু এমন কিছু বিষয় আছে আপনার উচিত যেগুলো কখনোই গুগলে সার্চ না করা, সার্চ করলে আপনার জন্য হিতে বিপরীত হতে পারে। টেকউইকি২৪ এর আজকের পোস্টে আমরা— যেসব বিষয় কখনোই গুগলে সার্চ করবেন না কিংবা করা উচিত না; সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানব! চলুন শুরু করা যাক!

যেসব বিষয় কখনোই গুগলে সার্চ করবেন না

অপরাধ সংক্রান্ত বিষয়াবলী

আমরা অনেকেই আছি যারা কৌতূহলী হয়ে গুগলে সার্চ করি How to make bomb/gun, How to hire a killer? কিন্তু সাবধান! গুগলে এই ধরনের প্রশ্ন কখনোই জিজ্ঞেস করবেন না। গুগলের অথরাইজড টিম সর্বক্ষণ এই কিওয়ার্ডগুলো মনিটর করে। কেউ এগুলো সার্চ করলেই তারা ব্যক্তির আইপি অ্যাড্রেস ট্র‍্যাক করে। এভাবে আপনার স্থানীয় পুলিশ আপনার কাছে পর্যন্ত চলে আসতে পারে এবং আপনার বিপদ হতে পারে।

⏩ আরও পড়ুন: কীভাবে ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করবেন?

নিজের সম্পর্কে

অনেকেই কৌতূহলবশত আমরা আমাদের নাম লিখে সার্চ করি যে কী ফলাফল আসে। কিন্তু এটা কখনো করবেন না। গুগল সর্বদা আপনার মুভমেন্ট মনিটর করছে। আপনার লোকেশন, আপনি কোথায় কখন যান। আপনার নিজের সম্পর্কে গুগলে কখনো সার্চ করলে অনেক ব্যক্তিগত তথ্য গুগলের ডেটা সেন্টারে ইনপুট হয়ে যেতে পারে। তাই নিজের সম্পর্কে গুগলে কখনো সার্চ করবেন না।

শিশুর গর্ভপাত

শিশু গর্ভপাত কিছু দেশে বৈধ হলেও প্রায় অধিকাংশ দেশেই এটা অবৈধ! অনেকেই আছে যারা গুগলে সার্চ করেন যে How to abort child? কিন্তু সাবধান হয়ে যান। পরবর্তীতে আর কখনো গুগলে এগুলো সার্চ করবেন না। করলে গুগল টিম আপনার আইপি অ্যাড্রেস ট্র‍্যাক করে আপনার ঠিকানায় পুলিশ পাঠিয়ে দিতে পারে। কারণ, এগুলো অনেক দেশেই অবৈধ, যার জন্য দেশের সংবিধানে এগুলো করা অপরাধ।

রোগ নিরাময় পদ্ধতি

আমাদের কিছু একটা শারীরিক সমস্যা হলেই আমরা গুগলে সার্চ করি বিষয়টা লিখে। ইন্টারনেট দুনিয়ায় সবকিছু সঠিক না। তথ্যের অবাধ বিচরণের কারণে ইন্টারনেটে বর্তমানে মিথ্যা, ভিত্তিহীন তথ্যের বিচরণ অতিমাত্রায় বেড়ে যাচ্ছে। আপনি যদি রোগ নিরাময় পদ্ধতির জন্য গুগলে সার্চ করেন তাহলে এমন কিছু তথ্যও পেতে পারেন যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। এতে করে আপনার বা প্রিয়জনের রোগ সারার বিপরীতে মারাত্মক সমস্যা হতে পারে। তাই এরকম সিরিয়াস বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

⏩ আরও পড়ুন: ইউটিউব মনিটাইজেশন ছাড়া আয় করার কয়েকটি উপায়!

ক্যান্সার সম্পর্কে

এটা এমন একটা রোগ যেখানে আপনি এটা সম্পর্কে যত কম জানবেন আপনি ততই সুখে ঘুমাতে পারবেন। নানান ধরনের ক্যান্সার রোগ আছে যার মধ্যে কতগুলো সাধারণত সবার মধ্যে দেখা যায়। আপনি যদি গুগলে ক্যান্সার রোগ সম্পর্কে সার্চ করেন তাহলে অনেক উল্টো-পাল্টা তথ্যও পেতে পারেন যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এমন অনেক লেখা আছে যেখানে বলা হয়েছে ক্যান্সার বলতে কোনো রোগই নেই। ওষুধ কোম্পানি ও হাসপাতালগুলোর সেবা বিক্রি করার জন্য অনেকে এমন প্রপাগাণ্ডা চালায়। তাই এরকম মিথ্যা তথ্য পেয়ে নিজেকে ভুল দিকে চালিত করা থেকে বিরত থাকতে এ বিষয়ে গুগলে সার্চ করবেন না।


প্রিয় পাঠক, এই ছিল— যেসব বিষয় কখনোই গুগলে সার্চ করবেন না কিংবা করা উচিত না; তার বিস্তারিত! এই পোস্টে আমরা ৫টি বিষয় কাভার করেছি! এগুলো ছাড়াও আরও অনেক টপিক আছে, সেগুলো গুগলে সার্চ করা উচিত না! সেসব নিয়ে আমরা পরবর্তীতে আরও পোস্ট দেবো! ওই পোস্টগুলো পড়তে চাইলে টেকউইকি২৪ এ চোখ রাখুন। আর এই পোস্টটা ভালো লাগলে প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

This Post Has One Comment

  1. Rotna

    Kintu amra beshir vag somoy osustho hole search Kore dekhi

মন্তব্য করুন: